এই মাত্র পাওয়া :

ঢাকা, শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০

বড়লেখার বাহাদুর পুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ৭ অভিযোগ

বিভাগ : চারপাশ প্রকাশের সময় :৫ মে, ২০২০ ৩:০১ : পূর্বাহ্ণ

সিলেট ব্যুরো: মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা উপজেলার বাহাদুর পুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও একজন মেম্বারের বিরুদ্ধে ৭ দফা অভিযোগ উঠেছে। ৭ দফা অভিযোগ এনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে অভিযোগ দাখিল করেছেন মাইজগ্রাম পূর্বের বদরুজ্জামান খান। বাহাদুর পুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ময়নুল হক ও ৭ নং ওয়ার্ডের মেম্বার সুনাম উদ্দিনের বিরুদ্ধে ওইসব অভিযোগ আনা হয়। প্রথম অভিযোগে বলা হয়েছে ওই ইউনিয়নে চান্দগ্রাম নামে একটি বাজার রয়েছে। এই বাজার ইজারা দেয়ার শতকরা ১৫ ভাগ টাকা ওই বাজার উন্নয়নের পেছনে ব্যয় করার নিয়ম রয়েছে। কিন্তু ২০১৬ সালে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর ওই বাজারের উন্নয়নে এক টাকাও ব্যয় করেননি ময়নুল হক। কাগজে পত্রে ব্যয় দেখিয়ে ৩৫ লাখ টাকা আত্মসাত করেছেন। দ্বিতীয় অভিযোগে বলা হয়েছে, এই ইউনিয়নের অধীনে যেসব বাজার রয়েছে, সেসব বাজার ইজার দিয়ে তার ৫ ভাগ বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ডে ব্যয় করা কথা। কিন্তু ওই ধরনের উন্নয়নের কোনো দৃশ্যমান নেই। তৃতীয় অভিযোগে বলা হয়েছে, উপজেলার সাব রেজিস্টার অফিস থেকে ১ ভাগ অনুদান পায় ইউনিয়ন অফিস। তারও নিয়মতান্ত্রিক কোনো ব্যবহার হয় না। চতুর্থ অভিযোগে বলা হয়েছে এই ইউনিয়নের ২০০০ স্কয়ার ফুটের কমিউনিটি সেন্টার রয়েছে। এই সেন্টারের ছাদ ভেঙ্গে তার মালামাল আত্মসাত করা হয়েছে। পঞ্চম অভিযোগে বলা হয়েছে এই ইউনিয়নের মুন্সিবাজারে বিশাল বিশাল বট গাছ রয়েছে। এসব গাছের বিশাল বিশাল ডাল কেটে বিক্রি করলেও তার কোনো হিসেব নেই। ষষ্ঠ অভিযোগে রয়েছে এই ইউনিয়নের তছার ব্রিজ থেকে রমার দোকান পর্যন্ত তিন কিলোমিটার রাস্তা রয়েছে। রাস্তার দুই পাশে প্রচীনকালের অনেক গাছ ছিল। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুমোতি ছাড়া ওইসব গাছ বিক্রি করে দিয়েছেন চেয়ারম্যান ময়নুল ও মেম্বার সুনাম উদ্দিন। সপ্তম অভিযোগে রয়েছে এই ইউনিয়নের উত্তর মাইজ গ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় স্কুলের বেশ কয়েকটি গাছ কেটে ফেলেন মেম্বার সুনাম উদ্দিন। ওইসব গাছ স্থানীয় একটি সমিলে নিয়ে যান মেম্বার সুনাম উদ্দিন। খবর পেয়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষক সমিলে গিয়ে মেম্বার সুনাম উদ্দিনকে হাতে নাতে ধরে ফেলেন। গাছগুলে আজো সমিলে জব্দ অবস্থায় রয়েছে। গত ৩ মে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে ওই অভিযোগ দাখিল করে তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন অভিযোগকারী বদরুজ্জামান খান।

Print Friendly and PDF

ফেইসবুকে আমরা