ঢাকা, সোমবার, ১০ আগস্ট ২০২০

শরীয়তপুরে চাঞ্চল্যকর ফাতেমা হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন

বিভাগ : জাতীয় প্রকাশের সময় :১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ২:৩২ : অপরাহ্ণ

শহিদুজ্জামান খান, শরীয়তপুর:

শরীয়তপুরে চোরের চুরিকাঘাতে চাঞ্চল্যকর ফাতেমা হত্যাকান্ডের প্রধান আমাসীকে আটক করা হয়েছে টাকা চুরির উদ্দ্যেশে ঘড়ে ঢোকার পর ফাতেমা চোরকে ঝাপটে ধরে ফেলায় তাকে কুপিয়ে জখম করার কথা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন আটক হান্নান মাদবর দুপুরে শরীয়তপুরের পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন সংবাদ সম্মেলন করে তথ্য জানিয়েছেন পুলিশের গোয়েন্দা তৎপরতা তথ্য প্রযুক্তির সহায়তা ঘটনার তিনদিন না পেরুতেই রহস্য উদঘাটন মুল আসামীকে আটকের দাবী করেন পুলিশ সুপার

তিনি আরো বলেন, ঘটনার সাথে আরো কয়েজন জড়িত রয়েছে তদন্তের স্বার্থে এখনি সব কিছু বলা যাচ্ছেনা আমরা বদ্ধপরিকর ঘটনার সাথে যারাই জড়িত রয়েছে সবাইকে আইনের হাতে সোর্পদ কবরো

সংবাদ সম্মেলনে শরীয়তপুর পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্ত মো: আসলাম উদ্দিন, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস আই রুপু কর স্থানীয় প্রিন্ট ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সংবাদ কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন

আটক হান্নান মাদবর বিনোদপুর খালাসী কান্দি গ্রামের আবুল মাদবরের ছেলে সে নিহত ফাতেমা বেগমের দু:র্স্পকের ভাসুরের ছেলে গতকাল রাতে নিজ এলাকা থেকে হান্নান মাদবরকে আটক করে পালং মডেল থানা পুলিশ

এদিকে, সকাল ১০টায় শরীয়তপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে ফাতেমা বেগম হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী জানিয়ে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে ফাতেমা বেগমের স্বজনরা

 

উল্লেখ্য, সদর উপজেলার বিনোদপুর খালাসিকান্দি গ্রামের মালয়েশিয়া প্রবাসী নাসির মাদবরের স্ত্রী ফাতেমা তিনি বগাদী দাখিল মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষিকা গত বৃহস্পতিবার ফাতেমা ব্যাংক হতে তিন লাখ টাকা উত্তোলন করে বসত ঘরের আলমারিতে রাখেন শনিবার দিবাগত রাত দুইটার দিকে এক ব্যক্তি বেড়া ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে আলমারি থেকে টাকা নিয়ে পালানোর সময় ঘুম ভেঙ্গে যায় ফাতেমার তিনি ওই চোরকে জাপটে ধরে চিৎকার করেন সময় চোর দা দিয়ে ফাতেমাকে কুপিয়ে আহত করে তখন তার ছেলে জুবায়েত মাদবর (১৫) তুহিন মাদবর (১৩) এগিয়ে এলে তাদেরও কুপিয়ে জখম করা হয়  সোমবার দুপুর ১টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায়  ফাতেমার মৃত্যূ হয়

Print Friendly and PDF

ফেইসবুকে আমরা